imageimage

প্রিয় ভাই/বোন আসসালামু আলাইকুম প্রথমে আমার সালাম নেবেন । আশা করি ভালো আছেন । কারণ TrickTuneBD.Com এর সাথে থাকলে সবাই ভালো থাকে । আর আপনাদের দোয়ায় আমি ও ভালো আছি ।

[start] আশা করি সবাই ভালো আছেন।আমিও ভালো আছি। আজ অন্য কোনো বিষয় নিয়ে নয়,আজ আমি আপনাদের জানাবে কি করে অল্প পড়ে ভালো রেজাল্ট করা যায় বা কি করে সহজে পড়া মনে রাখা যায় সেই টিপস। [h2]অনেক ছাত্রছাত্রী আছেন যারা ভালো রেজাল্টের জন্য অনেক পড়েন কিন্তু পড়া মনে থাকে না।তাদের বলব জেনে নিন কি করে অল্প পড়ে ভালো রেজাল্ট করবেন।যদি আপনার এই টিপস গুলো জানা থাকে এবং আপনি মেনে চলেন তবে আপনিও হতে পারেন ফাস্ট ছাত্র বা ছাত্রী। বাবা,মা সব সময় আমাদের বলেন “ভালো করে পড়।ভালো রেজাল্ট কর”।আর এটাতো ঠিক কথা।সব মা,বাবা চান সন্তান ভালো কিছু করুন।আর আপনিও মা বাবার কথা শুনে কোমর বেঁধে লেখা পড়া শুরু করে দেন। কিন্তু বছর শেষে দেখা যায়,পাশের বাড়ির যে ছেলে সারা দিন খেলা করত সেই হয়েছে পরিক্ষায় ফাস্ট। এটা দেখে আপনার মন ভেঙ্গে যেতে পারে। তাই বলছি আর কষ্ট করে মুখস্ত না করে বুদ্ধি করে পড়েন। তবে আপনিও প্রথম হতে পারবেন। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে চলে যায় কি করে সহজে পগা মনে রাখা যায় সেই সকল টিপসে। ১ নং টিপসঃ একটানা বেশিক্ষন না পড়া। বিজ্ঞানীদের মতে আমাদের মাথায় একটানা ২৫-৩০ মিনিট চাপ দেওয়ার পরে কিছুক্ষন বিশ্রাম করা দরকার। তাই ঘন্টার পর ঘন্টা না পড়ে ২৫-৩০ মিনিট পড়ার পরে ৫মিনিটের জন্য বিশ্রাম নিতে হবে।এই ৫মিনিটে আপনি আপনার ইচ্ছে মতো যেকোনো কাজ করতে পারেন।যেমন টিভি দেখা,গেম খেলা,খাওয়া,গান শোনা বা একটু ফেসবুক থেকে ঘুরে আসা ইত্যাদি। ২নং টিপসঃ পড়াকে ছোট ছোট করে ভাগ করে নেয়া। আমরা বছরের শুরুতে বই হাতে পেয়ে ভাবি এইবার আর ফাকি দিবো না।সব পড়ে ফেলব।কিন্তু অনেক সময় আমাদের এই”লক্ষ্য’ লক্ষ্য থেকে যাই পুরন করা হয় না। আমরা যদি একবারে সব শেষ করার কথা মনে না করে,পড়া গুলোকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে ফেলি।আর একদিনে কোন ভাগ পগে শেষ করতে হবে সেইটা ঠিক করি,আর সেই পড়া শেষ না হওয়া পযর্ন্ত হাল না ছাড়ি।তবে বছর শেষে দেখব এই ছোট ছোট লক্ষ্য থেকে ফাটাফাটি রেজাল্ট করা সম্ভব। ৩নংটিপসঃ মুখস্থ নয় বুঝে পড়া। ছোট বেলা থেকেই আমরা কবিতা বা ছড়া দাড়ি,কমাসহ মুখস্থ করে লিখে দিতে পারি।এইটা আমাদের বড় ভুল।কারন বড় হয়ে যখন ব্যাখা করতে বলা হয় তখন চুপ করে দাড়িয়ে থাকি আমরা। বতর্মানে সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরিক্ষা হয়।তাই যতই আমরা মুখম্থ করি না কেন ভুলে যেতে পারি পরিক্ষার সময়।তাই আমরা যদি বুঝে পড়ি আমাদের দশবার পড়ার দরকার হবে না। ৪নং টিপসঃ মনোযোগ দিয়ে পড়া। ভেবে দেখুন তো আপনি সারা দিন কত ঘন্টা বই নিয়ে বসে থাকেন।আর তার মাঝে কত সময় বই পড়েন? তাই যখন বই পড়বেন মাথা থেকে সব চিন্তা ঝেড়ে ফেলে দেন এবং১০০% মনোযোগ দিয়ে বই পড়েন।তবে পড়া সহজে মনে থাকবে। ৫ নং টিপসঃ গল্পের মতো করে পড়া। আমরা সবাই গল্প শুনতে ভালোবাসি।তাই যদি আমরা আমাদের পড়াকে গল্পের মতো করে নিই,এবং গল্প আকারে বই পড়ি তবে খুব অল্প সময়ে অনেক কঠিন পড়া মনে রাখা সম্ভব।কারন গল্প আকারে পড়লে বেশি মনে থাকে। ৬নং টিপসঃ গ্রুপ করে লেখাপড়া। বলা হয়ে থাকে মানুষ একা থাকতে পারে না।তার জন্য বন্ধুদের দরকার হয়। আর আমরা যদি সেই সুযোগটাই আমাদের লেখাপড়ার কাচে লাগায়।তবে কেমন হবে? হ্যাঁ,আমাদের বন্ধুদের সাথে ৪-৫ জন একসাথে বসে গ্রুপ করে পড়তে পারি।এতে করে আমি যেটা ভালো পারি সেইটা অন্যকে বুঝাতে পারব।আর অন্যরা যেটা ভালো প্রে আমি শিখে নিতে পারব।এতে সবার ভালো হবে। ৭নং টিপসঃ বিভিন্ন সোর্স থেকে পড়া। এক রকম কোনো কিছু করলে একঘেয়েমি মনে হয়।ঠিক তেমনই আমরা যদি এক বই থেকে পড়ি তবে একঘেয়েমি মনে হবে। এই কারনে আমরা যদি অনেক লেখকের বই থেকে ভালো ভালো অংশ পড়ি তবে মনে থাকবে।আর পরিক্ষার সময় সবার লেখার সাথে মিশে যাবে না। আর যদি সবার লেখার সাথে আপনার লেখা মিলে না যায় এবং অন্য রকম হয়,তবে সবার থেকে আপনি বেশি নাম্বর পাবেন এবং পরিক্ষায় প্রথম হবেন। আশা করি সকল ছাত্রছাত্রী টিপস গুলো মেনে পড়বেন।এতে করে আপনারা অনেক ভালো ফলাফল করতে পারবেন পরিক্ষাই। আজ এপযর্ন্ত।সবাই ভালো থাকবেন।[/h2] [end]

তাহলে ভাই/বোন ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন TrickTuneBD.Com এর সাথে থাকুন । আর এই সাইট যদি ভালো লাগে আপনার বন্ধুদের জানাবেন । ধন্যবাদ ।

2 thoughts on "পড়া মনে রাখার ৭টি সহজ টিপস।"

  1. AdminAdministrator says:
    খুব ভালো পোস্ট
    1. hidoyContributor Post Creator says:
      tnx

Leave a Reply